বিদ্যুত সাশ্রয়ী পরামর্শ

  • আমরা কি সঠিক ভাবে বিদ্যুত ব্যবহার করছি?
  • ব্যবহার শেষে আপনার বাড়ি ও অফিসের বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির সুইচ বন্ধ করুন । একটি কমপিউটার যা ২৪ ঘন্টা চলে তা একটি বিদ্যুত সাশ্রয়ী ফ্রিজের চেয়ে বেশি শক্তি গ্রহন করে ।.
  •  

  • যদি কম্পিউটার অন রাখতেই হয় সেক্ষেত্রে মনিটর বন্ধ রাখা উচিত কারন মনিটর একাই সিস্টেমের ৫০% এর বেশি বিদ্যুত ব্যবহার করে ।
  •  

  • কম্পিউটার, মনিটর এবং কপি মেশিন সমূহ ব্যবহার শেষে স্লিপ-মোডে রাখা উচিত, এতে প্রায় ৪০% বিদ্যুত সাশ্রয় হয়ে থাকে ।
  •  

  • ব্যাটারি চার্জার (যেমন- ল্যাপটপ, সেল ফোন এবং ডিজিটাল ক্যামেরা ইত্যাদির) সমূহ প্লাগ ইন করে রাখলে তারা শক্তি গ্রহন করতে থাকে সুতরাং চার্জার বৈদ্যুতিক পয়েন্ট থেকে খুলে রাখা উচিত ।
  •  

  • স্ক্রীন সেভার স্ক্রীন সেভ করে শক্তি নয় । কাজ শেষে কমপিউটার বন্ধ করলে শক্তি সংরক্ষিত হয় । স্টার্ট আপ বা শাট ডাউন করতে কোন অতিরিক্ত শক্তি খরচ হয় না কিন্ত এর ফলে আপনার যন্ত্র ভাল থাকবে এবং শক্তি সংরক্ষন হবে ।
  •  

  • আমাদের অন্যতম প্রধান শক্তি সাশ্রয়ী যন্ত্র হলো সুইচ, ব্যবহার শেষে আপনার লাইট বন্ধ করুন ।
  •  

  • নোংরা টিউব লাইট এবং বাল্ব প্রায় ৫০% আলো শোষন করে নেয় । আপনার টিউব লাইট এবং বাল্ব নিয়মিত পরিস্কার করুন ।
  •  

  • ফ্লুরোসেন্ট টিউব লাইট এবং সিএফএল বাল্ব সাধারন বাল্ব এর তুলনায় ৫গুন অধিক কার্যকর এবং প্রায় ৭০ ভাগ বিদ্যুত সাশ্রয় করে সমপরিমান আলো প্রদান করে ।
  •  

  • সাধারন বাল্ব দারা গ্রহনকৃত শক্তির ৯০ভাগ তাপে পরিনত হয়, আলোতে পরিনত হবার পরিবর্তে ।
  •  

  • ১৫ ওয়াটের ফ্লুরোসেন্ট বাল্ব ৬০ ওয়াটের ইনক্যানডিসেন্ট বাল্ব এর সমপরিমান আলো প্রদান করে ।
  •  

  • ওয়াটার হিটারের তাপমাত্রা ৬০ থেকে ৫০ ডিগ্রী তে নামিয়ে ব্যবহৃত শক্তি এর ১৮ ভাগ সাশ্রয় করতে পারেন
  •  

  • তাপ শক্তির অপচয় কমাতে আপনার গরম পানির পাইপে ইনসুলেটর ব্যবহার করুন ।
  •  

  • পানি গরম করার জন্য ইলেক্ট্রিক কেটলি ব্যবহার করুন, ইলেক্ট্রিক কুক পট এর তুলনায় কেটলি ব্যবহার করা বিদ্যুত সাশয়ী
  •  

  • আপনার সকল কাপড় একসাথে আয়্রন করুন । আয়্রন করা কালীন ইস্ত্রিটি কে সুইচ অন অবস্থায় সোজা করে রাখলেও তা বিদ্যুত গ্রহন করতে থাকবে এবং বিদ্যুত অপচয় হবে ।
  •  

  • ফ্রিজে গরম খাবার রাখবেন না ।
  •  

  • ঘরের দেয়াল, ছাঁদ, পর্দা ও আসবাবপত্র সমূহে অধিক পরিমানে সাদা রঙ এর ব্যবহার ঘর কে উজ্জ্বলতর করে । এতে অনেক ক্ষেত্রে বিদ্যুত সাশ্রয় হয়ে থাকে ।
  •  

  • খাবারের পরিমান বেশি না হলে ফ্রিজ খুব নিম্ন তাপমাত্রায় রাখা প্রয়োজনীয় নয় ।
  •  

  • দিনের বেলায় দরজা জানালা দিয়ে আগত প্রাকৃতিক আলো ব্যবহারের মাধ্যমে কৃত্রিম আলোর ব্যবহার কমানো সম্ভব ।
  •  

  • যে সকল ফ্রীজ আটো ডিফ্রস্ট তারা অধিক পরিমান বিদ্যুত গ্রহন করে, উপরন্ত বড়ো ফ্রীজ বেশি বিদ্যুত ব্যবহার করে ।
  •  

বিদ্যুতের সঠিক ব্যবহার টেকসই উন্নয়ন ও প্রবর্ধন নিশ্চিত করে ।

গাইড টি ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করুন ।


কপিরাইট@২০০৬-২০১৬ -ঢাকা ইলেক্ট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেড (ডেসকো). সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত.
সাইটটি ডিজাইন করেছেন ও মেইনটেইন করেন
ডেসকো আইসিটি ডিভিশন |